পাঠদান ব্যবস্থা

ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রাম এবং ফাউন্ডেশন ক্লাস

উচ্চমাধ্যমিক স্তরের সিলেবাস ও কলেজের নিজস্ব শিক্ষা-পদ্ধতির সঙ্গে ছাত্র-ছাত্রীদের পরিচিত করানোর লক্ষ্যে প্রথম বর্ষের ক্লাস শুরুর পর পরই ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রামের আয়োজন করা হয়। ফাউন্ডেশন ক্লাসে ইংরেজিসহ বিভিন্ন বিষয়ে বেসিক ধারণা দেওয়া হয়। এছাড়াও হাতের লেখা সুন্দর করার অনুশীলনসহ সিলেবাসের সমান্তরালে ঐতিহ্য, কৃষ্টি, আচার-আচরণ, মানবিক মূল্যবোধ ও নৈতিকতা বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।

পাঠদান ব্যবস্থা

রাজধানী আইডিয়াল কলেজে পাঠদানের জন্য রয়েছে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত দক্ষ ও অভিজ্ঞ শিক্ষকমণ্ডলী। শ্রেণিকক্ষে পাঠদানের পাশাপাশি Assignment, Library Research এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীকে বিষয়ভিত্তিক দক্ষ করে গড়ে তোলা হয়। শিক্ষার মাধ্যম বাংলা হলেও উচ্চ শিক্ষার পথ সুগম করার লক্ষ্যে ইংরেজির উপর বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হয়।

অ্যাকাডেমিক ক্যালেন্ডার

পড়ালেখা সঠিকভাবে চালিয়ে যাওয়ার জন্য দিক নির্দেশনা প্রয়োজন। এ লক্ষ্যে ভর্তির সময়ই প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে পুস্তকাকারে মুদ্রিত নির্ধারিত সময় বণ্টনসহ কোর্সপ্ল্যান সমৃদ্ধ অ্যাকাডেমিক ক্যালেন্ডার প্রদান করা হয়। এতে পাঠ্য বিষয়গুলো সেমিস্টার অনুযায়ী লেকচারের সাথে তাল মিলিয়ে বিন্যস্ত থাকে। এছাড়াও CT, MT ও সেমিস্টার পরীক্ষার তারিখ সুস্পষ্ট উল্লেখ থাকে।

কলেজ ডায়েরির ব্যবহার

শিক্ষাবর্ষের শুরুতেই প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে কলেজ ডায়েরি প্রদান করা হয়। ডায়েরিতে শিক্ষার্থী প্রতিদিনের নির্ধারিত পাঠ লিপিবদ্ধ করবে এবং শিক্ষকের নিকট থেকে উপস্থিতির স্বাক্ষর নেবে। শিক্ষকগণও শিক্ষার্থীর পড়ালেখার উন্নতি-অবনতি বিষয়ে ডায়েরিতে প্রয়োজনীয় মতামত দেন। বাড়িতে অভিভাবক প্রতিদিন ডায়েরি দেখে স্বাক্ষর করবেন। ফলে অভিভাবক শিক্ষার্থীর Class Performance সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারণা লাভ করবেন।

শ্রেণি কার্যক্রম

রাজধানী আইডিয়াল কলেজ শ্রেণি কার্যক্রমকে সর্বাধিক গুরুত্ব প্রদান করে। এলক্ষ্যে শিক্ষাবর্ষের শুরুতে প্রদেয় অ্যাকাডেমিক ক্যালেন্ডার যথাযথ অনুসরণ করা হয়। কোর্সের পরিধি ও শিক্ষার্থীদের ধারণ ক্ষমতার সাথে সামঞ্জস্য রেখে প্রতিটি ক্লাসের সময়সীমা নির্ধারণ করা হয়। ক্লাসেই শতকরা ৮০ ভাগ পড়া শিখিয়ে দেয়া হয়। ফলে শিক্ষার্থী বাসায় পাঠ প্রস্তুতে সমস্যায় পরে না। শিক্ষকগণ প্রতিটি বিষয়ই শিক্ষার্থীর উপযোগী করে ক্লাসে বুঝিয়ে দেন। এরপরও ক্লাসে পুরোপুরি না বুঝলে ক্লাসের পরে পুনরায় সংশ্লিষ্ট শিক্ষকের নিকট থেকে তা বুঝে নেয়া যায়।