পরীক্ষার ফলাফল ও প্রমোশনবিধি

সেমিস্টার পরীক্ষা : সেমিস্টার পরীক্ষার ১০০ নম্বরের সাথে শ্রেণি পরীক্ষার ১০ নম্বর এবং মিড সেমিস্টার পরীক্ষার ৩০ নম্বর অর্থাৎ ১০০+১০+৩০ = ১৪০ নম্বরের ভিত্তিতে ফলাফল তৈরি করা হয়। ব্যবহারিক বিষয়সমূহে তত্ত্বীয় ও ব্যবহারিকে আলাদাভাবে শতকরা ৩৬ নম্বর পেলে পাস ধরা হয়।

প্রথম বর্ষ ফাইনাল: প্রথম সেমিস্টারের ৪০% ও দ্বিতীয় সেমিস্টারের ৬০% নম্বর নিয়ে প্রথম বর্ষ ফাইনালের চূড়ান্ত ফলাফল তৈরি করা হয়। কোনো ক্রমেই অকৃতকার্য শিক্ষার্থীকে দ্বিতীয় বর্ষে প্রমোশন দেয়া হয় না।

পরীক্ষার ফলাফল মূল্যায়ন সভা : প্রত্যেক সেমিস্টার পরীক্ষার পর অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের সভায় পরীক্ষার ফলাফল পর্যালোচনা করা হয়। উক্ত সভায় অকৃতকার্য শিক্ষার্থীদের ব্যর্থতার কারণ পর্যালোচনা করে গাইড শিক্ষকের মাধ্যমে অভিভাবকের সাথে আলোচনা করে শিক্ষার্থীর পড়ালেখার মান উন্নয়নে কার্যকরী পদক্ষেপ নেয়া হয়

রিভিশন ক্লাস : নির্বাচনি পরীক্ষার পর রিভিশন ক্লাসের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের সম্পূর্ণ সিলেবাস রিভিশন দেয়া হয়। এ ক্লাস শিক্ষার্থীকে সর্বাধিক সহায়তা এবং বিভিন্ন বিষয়ের Test Paper Solve করানো হয়। সপ্তাহের শনিবার দুটি বিষয়ের উপর মডেল টেস্ট নেয়া হয়। যা শিক্ষার্থীকে ভালো ফলাফলে সাহায্য করে।

মডেল টেস্ট : বোর্ড পরীক্ষার পূর্বে শিক্ষার্থীর সর্বশেষ মূল্যায়ন পরীক্ষা হলো মডেল টেস্ট। এ পরীক্ষাগুলো বোর্ড পরীক্ষার অনুরূপ হয়। এই পরীক্ষার ফলাফলের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের বোর্ড পরীক্ষা পূর্ববর্তী সর্বশেষ অবস্থা সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারণা পাওয়া যায় এবং কোনো বিষয়ে শিক্ষার্থীর প্রস্তুতি কম হলে সে বিষয়ে পূর্ণ প্রস্তুতি নিতে পারে। এক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট বিষয় শিক্ষকের তত্ত্বাবধানে রেখে যথাযথ পদক্ষেপ নেয়া হয়।